১৬ আগস্ট ১৯৭৫: কী বলেছিল সেদিনের গণমাধ্যম?

পনেরোই আগস্ট ১৯৭৫। এক ঘোর কৃষ্ণপক্ষ নেমে এসেছিল বাঙলাদেশের বুকে। জাতির জনককে সপরিবারে হত্যার যে নারকীয় ঘটনা সেদিন ঘটেছিল, তার নজির পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। কিন্তু পঁচাত্তর-পরবর্তী সময় থেকেই বাঙলাদেশে সবচেয়ে প্রচলিত কথা হচ্ছে, “কতিপয় বিপথগামী সেনাসদস্য বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল।” সন্দেহ নেই, এ কথাটির মাঝেই রয়েছে একটি বড়ো রকমের ফাঁকি। কারণ, সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ, বেতার…

রাজনৈতিক পাপের উৎস সন্ধানে

স্বাধীন বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে সবচেয়ে বড় পাপটি ছিল ১৯৭৫ সালের পনেরোই আগস্ট। তৎকালীন রাষ্ট্রপ্রধান জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে যে রাজনৈতিক কুনাট্যের সূচনা হয়েছিল বাংলাদেশে—তার ঠিক ৭৯ দিন পর, পঁচাত্তরের ৩ নভেম্বর—জেলখানায় জাতীয় চার নেতাকে হত্যার মধ্য দিয়ে এই কুনাট্যের প্রথম অঙ্কের সমাপ্তি ঘটে। এরপর থেকে আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় চরিত্রের যে স্খলন…

রায় হয়েছে, তবে জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হয়নি

১৯৭১ সালের মহাকাব্যিক মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি এক অনন্য বিজয় অর্জন করেছিলো। মাত্র নয় মাসের সশস্ত্র যুদ্ধে পাকিস্তানি বর্বর বাহিনীকে পরাজিত করে বাঙালি প্রমাণ করেছিলো স্বাধীনতার দুর্দমনীয় আকাঙ্ক্ষা আর মুক্তির মন্দির সোপানতলে প্রাণ বলিদান দেবার দৃঢ় প্রত্যয়। যে গণহত্যা আর বিভৎস নারী নির্যাতন চালিয়েছিলো পাকিস্তানের অমানুষ সেনাবাহিনী, তার সঙ্গে প্রত্যক্ষ মদদ দিয়েছিলো এদেশীয় রাজাকার, আল-বদর, আল-শামসের কুলাঙ্গারেরা।…